দেশে অ্যাভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় হবে : পর্যটনমন্ত্রী

0
20
দেশে অ্যাভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, বাংলাদেশি তরুণদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে সরকার দেশে একটি অ্যাভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে।

পর্যটনমন্ত্রী আজ শনিবার সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে পর্যটনবিষয়ক ম্যাগাজিন ‘ভ্রমণ’ ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড (বিটিবি) আয়োজিত ‘রোল অ্যান্ড ইমপ্যাক্ট অব অ্যাভিয়েশন সেক্টর অন ভিজিট বাংলাদেশ-২০১৬’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, যেখানে কর্মসংস্থান একটি বিশাল চ্যালেঞ্জ, সেখানে অ্যাভিয়েশন সেক্টর এখনো সেভাবে বিকশিত হয়নি। এই শূন্যতা পূরণের লক্ষ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হবে। তিনি বলেন, সময়ের পরিবর্তিত প্রয়োজনে বিশ্বব্যাপী অ্যাভিয়েশন সেক্টর এখন অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিনিয়তই এ সেক্টরে কাজের পরিধি বৃদ্ধি পাচ্ছে বলেও উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, পর্যটনশিল্পের উন্নয়ন ও বিকাশে অ্যাভিয়েশন সেক্টরের ভূমিকা অনস্বীকার্য। অধিকাংশ পর্যটক বিমানে চড়েই আসেন এবং বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা পেরিয়েই একটি দেশের মাটিতে পা রাখেন। সুতরাং পর্যটকদের সঙ্গে অতিথির মতো আচরণের মাধ্যমে দেশের ভাবমূর্তি বৃদ্ধি করা যায়, যা পর্যটনশিল্পে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে।
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. রফিকুজ্জামানের সভাপতিত্বে সেমিনারে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন, কম্পট্রোলার জেনারেল অব বাংলাদেশ মাসুদ হোসেন, মালয়েশিয়া-বাংলাদেশ চেম্বারের সাবেক সভাপতি নাসির এ চৌধুরী, বিটিবির সিইও আখতারউজ্জামান খান কবির প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বেসরকারি বিমান সংস্থা ‘নভোএয়ার’-এর এমডি মফিজুর রহমান। সেমিনারে বক্তারা বলেন, সরকার ঘোষিত পর্যটনবর্ষে সাফল্যের জন্য অ্যাভিয়েশন সেক্টরের ভূমিকা যেমন বিরাট, তেমনি সরকারের কিছু উদ্যোগী ভূমিকা পাওয়া গেলে এখান থেকে খুব দ্রুত অনেক বড় সাফল্য অর্জন করা সম্ভব। বাংলাদেশে ১৫টি বিমানবন্দর আছে, অথচ চালু আছে মাত্র সাতটি। রংপুর, ঠাকুরগাঁও, ঈশ্বরদী, শমসেরনগর, সন্দ্বীপ, কুমিল্লা, খুলনা ও সিরাজগঞ্জের বিমানবন্দরের কথা অনেকের অজানা। এগুলো দ্রুত চালু করা গেলে শুধু পর্যটনশিল্পেই নয়, বাংলাদেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

Please follow and like us:
20

Comments

comments