রাসায়নিক হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে সিরিয়া

0
29
ওয়াশিংটন, ২৭ জুন- সিরিয়ার সরকারি বাহিনী আবারও রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের প্রস্তুতি নিচ্ছে- এমন তথ্য পাওয়ার কথা জানিয়ে প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত এপ্রিলে রাসায়নিক হামলার আগে যে ধরনের তৎপরতার তথ্য এসেছিল, এবারও একই ধরনের কর্মকাণ্ডের খবর যুক্তরাষ্ট্রের কাছে আছে বলে হোয়াইট হাউজের ভাষ্য।

সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিব প্রদেশের খান শেইখৌনে গত ৪ এপ্রিলের ওই রাসায়নিক হামলায় ৮৯ জনের মৃত্যু হয়। যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলো ওই ঘটনার জন্য সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে দায়ী করে।

এরপর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে ভূমধ্যসাগরে অবস্থানরত দুটি যুদ্ধজাহাজ থেকে ৫৯টি টমাহক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে সিরিয়ার হামস প্রদেশের শায়রাত বিমান ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। ওই বিমান ঘাঁটি থেকেই রাসায়নিক অস্ত্র হামলা চালানো হয়েছিল বলে দাবি যুক্তরাষ্ট্রের।

সোমবার হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র শন স্পাইসার ওই বিবৃতিতে বলেন, “আমরা আগেই, ইরাক ও সিরিয়া থেকে আইএসকে নির্মূলের জন্যই যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ায় রয়েছে। মিস্টার আসাদ যদি রাসায়নিক অস্ত্র দিয়ে আরও একটি গণহত্যা চালান, তাহলে তাকে এবং তার বাহিনীকে চড়া মূল্য দিতে হবে।”

প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ বরাবরই শেইখৌনে গ্যাস হামলার পেছনে তার বাহিনীর হাত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। আর ক্ষেত্রেও তিনি পুরনো মিত্র রাশিয়াকে পাশে পাচ্ছেন।

সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরুর পর গত ছয় বছরে আড়াই লাখের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। প্রায় ৫০ লাখ সিরীয় পালিয়ে অন্য দেশে আশ্রয় নিয়েছেন এবং ৬০ লাখেরও বেশি সিরীয় উদ্বাস্তুতে পরিণত হয়েছেন বলে জাতিসংঘের হিসাব।

Please follow and like us:
20

Comments

comments