১৩ বছরের ছাত্রের প্রেমে অন্তঃসত্ত্বা শিক্ষিকাকে খুঁজছে পুলিশ

0
18
১৩ বছরের ছাত্রের প্রেমে অন্তঃসত্ত্বা শিক্ষিকাকে

প্রায় মাসখানেকের প্রেমেই অন্তঃসত্ত্বা হয়ে এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন টেক্সাসের ২৪ বছর বয়সী এক ইংরেজি শিক্ষিকা। তার অপরাধ হচ্ছে, মাত্র ১৩ বছরের এক বালকের সাথে তিনি প্রেম করেছিলেন।

অপ্রাপ্ত বয়স্ককে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে টেক্সাস পুলিশ তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাও জারি করেছে। আর সেকারণেই এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এই শিক্ষিকা। অবশ্য প্রথম দফায় অ্যালেক্সান্দ্রিয়া ভেরা নামের ঐ শিক্ষিকা অভিযুক্ত হলেও সে সময় ১ লাখ ডলার খরচ করে মিটিয়ে ফেলেন তিনি। এর একদিন পরই গর্ভবতী হওয়ার খবর পেয়ে হোস্টন পুলিশ তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, হ্যারিস কাউন্ট্রির স্টোভাল মিডল স্কুলে পড়াতেন ভেরা। সেখানেই ১৩ বছর বয়সী এক ছাত্রের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। নিয়মিত তাদের দৈহিক সম্পর্ক থাকলেও অবশ্য তখন বিষয়টি কেউ জানতে পারেনি। একসাথে কেউ তাদের দেখে সম্পর্ক জানতে চাইলে ভাই বলেই পরিচয় দিতেন ভেরা। তবে ঐ শিক্ষিকা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়। জেরার মুখে স্কুলের প্রিন্সিপালের কাছেও বিষয়টি স্বীকারও করেন ঐ শিক্ষিকা। তবে পুলিশ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করলে গা ঢাকা দেন তিনি।

অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার জন্য প্রথমে ঐ ছাত্রকেই দোষারোপ করেছিলেন শিক্ষিকা। যদিও তা বিশ্বাসযোগ্য নয় বলেই জানিয়েছে পুলিশ। স্কুলের ঐ ছাত্র নাবালক হওয়ায় তার বিরুদ্ধে এখনই কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। তবে বিচারের আওতায় আনতে শিক্ষিকাকে আটকে পুলিশ তৎপর হয়েছে।

অবশ্য স্কুলের প্রিন্সিপাল এলসা রাইট পুলিশকে জানিয়েছেন, ভেরা তার কাছেও এই সম্পর্কের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। এ-ও জানিয়েছেন, ছাত্রটির পরিবার এই সম্পর্ক মেনে নিয়েছে। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবরে তারা উত্‍‌ফুল্ল। ভেরাকে তারা বাড়িতে আমন্ত্রণও জানিয়েছেন।

পরিবার মেনে নিলেও কিন্তু শাস্তির হাত থেকে নিস্তার পাবেন না এই শিক্ষিকা। কারণ, টেক্সাসের বর্তমান আইন অনুযায়ী, এ ধরনের অপরাধে ২৫ বছর পর্যন্ত জেল হওয়ার নিধান রয়েছে।

Please follow and like us:
20

Comments

comments