প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ইমামের ভ্যান চলে যাচ্ছে যাদুঘরে

0
9

প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ইমামের ভ্যান চলে যাচ্ছে যাদুঘরে। টুঙ্গিপাড়ার ভ্যান চালক ইমাম শেখ বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে চাকরি পেয়েছে। আর ইমামের বাবা মানসিক রোগী আব্দুল লতিফ শেখের চিকিৎসা ও ঘরবাড়ি মেরামতের জন্য বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকে ৪০ হাজার টাকা সহায়তা দেয়া হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ১৭ বছর বয়সী ভ্যানচালক ইমামের বাড়ি গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়া উপজেলার পাটগাতী সরদার পাড়া গ্রামে। সে প্রায়  দুই বছর ধরে ভ্যান চালায়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রিকশা ভ্যানে বসে শুক্রবার সকালে গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় নিজ এলাকা ঘুরে দেখেন। হাস্যোজ্জ্বল শেখ হাসিনা কোলে নাতিকে নিয়ে বসেন ভ্যানের সামনের দিকে, অন্য পাশে ভাগ্নে ছোট বোন শেখ রেহানার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক। পেছন দিকে বসেন রাদওয়ানের মেয়ে ও স্ত্রী পেপি সিদ্দিক। প্রধানমন্ত্রী যে ভ্যানে বসে পৈত্রিক এলাকা ঘুরে দেখেন।
পরের দিন শনিবার ইমাম শেখ সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে বারবার একটি চাকরি দেয়ার কথা বলতে চেয়েছিলাম। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আমার ভ্যানে চড়ে ঘুরবেন- এমনটা কোনোদিনও কল্পনা করতে পারিনি। এ আনন্দে শেষ পর্যন্ত আর মনের কথা বলতে পারিনি।’
টুঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী গোলাম মোস্তফা, টুঙ্গিপাড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি বিএম গোলাম কাদের স্বাক্ষী হিসেবে ইমাম শেখের নিয়োগ পত্রে স্বাক্ষর করেন। এ সব প্রক্রিয়া শেষে দুপুর ১২ টার দিকে ইমাম শেখ ব্যাগ ব্যাগেজ ও ভ্যান নিয়ে বিমান বাহিনীর গাড়িতে করে যশোরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন।
বিমান বাহিনীর যশোর ক্যান্টনমেন্টের বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান ঘাঁটির স্কোয়ার্ডন লিডার হারুন-উর- রশিদ বলেন, উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ইমামকে বিমান বাহিনীতে চাকরি দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে তার নিয়োগপত্র হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ভ্যান আমরা যশোর নিয়ে যাচ্ছি। পরে এ ভ্যান যাদুঘরে পাঠানো হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকার প্রতিনিধি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেন, পরম মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী ইমামের মনের ইচ্ছা জানতে পেরে তা পুরন করেছেন। দরিদ্র এ পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। দিয়েছেন ইমামের পিতার চিকিৎসা ও বাড়িঘর মেরামতের সহায়তা।

ইমামের মা শাহানূর বেগম বলেন, প্রধানমন্ত্রী ছেলের চাকরি দেয়ার পাশাপাশি আমাদের জন্য সব কিছু করবেন এমন প্রত্যাশা করিনি। প্রধানমন্ত্রী আমাদের জন্য যা করেছেন, তার জন্য আমারা সারা জীবন কৃতজ্ঞ থাকবো। তিনি আমাদের মতো গরীব মানুষের মুখে হাঁসি ফুঁটানোর জন্যই নিরলস কাজ করছেন। আল্লাহ তাকে দীর্ঘ দিন দেশ পরিচালনার এ মহৎ কাজে নিয়োজিত রাখুন এ দোয়া করি।
উল্লেখ্য, গত শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নাতি নাতনি নিয়ে ইমামের ব্যাটারী চালিত ভ্যানে করে টুঙ্গিপাড়া গ্রামে ঘুরতে বের হন।

Please follow and like us:
20

Comments

comments