রুনা লায়লার যত জানা-অজানা- অজানা কিছু তথ্য

0
26
রুনা লায়লার যত জানা-অজানা

রুনা লায়লার যত জানা-অজানা

বাংলাদেশের খ্যাতনামা গায়িকা রুনা লায়লা। তিনি বাংলাদেশে চলচ্চিত্র, পপ ও আধুনিক সঙ্গীতের জন্য বিখ্যাত। তবে দেশের বাইরে গজল গায়িকা হিসাবে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশে তার সুনাম আছে। স্বাধীনতার আগে থেকেই তিনি চলচ্চিত্রের গায়িকা হিসাবে কাজ শুরু করেন।

বাংলাদেশ ছাড়াও ভারতীয় এবং পাকিস্তানি চলচ্চিত্রের অনেক গানে তিনি কণ্ঠ দিয়েছেন। রুনা লায়লা বাংলা, উর্দু, পাঞ্জাবি, হিন্দী, সিন্ধি, গুজরাটি, বেলুচি, পশতু, পারসিয়ান, আরবি, মালয়, নেপালি, জাপানি, স্পেনিশ, ফ্রেঞ্চ, ইতালিয়ান ও ইংরেজি ভাষাসহ মোট ১৮টি ভাষায় ১০ হাজারেরও বেশি গান করেছেন। পাকিস্তানে তার গান দমাদম মাস্ত কালান্দার অত্যন্ত জনপ্রিয়। আজ ১৭ নভেম্বর এ খ্যাতনামা গায়িকার জন্মদিন।

রুনা লায়লা সিলেটে জন্মগ্রহন করেন। তার বাবা সৈয়দ মোহাম্মদ এমদাদ আলী ছিলেন সরকারি কর্মকর্তা এবং মা আনিতা সেন ওরফে আমেনা লায়লা ছিলেন সঙ্গীত শিল্পী। তার মামা সুবীর সেন ভারতের বিখ্যাত সঙ্গীত শিল্পী। তার যখন আড়াই বছর বয়স তার বাবা রাজশাহী থেকে বদলী হয়ে তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তানের মুলতানে যান। সে সুত্রে তার শৈশব কাটে পাকিস্তানের লাহোরে।

রুনা লায়লা চাষী নজরুল ইসলাম পরিচালিত শিল্পী নামক চলচ্চিত্রে চিত্রনায়ক আলমগীরের বিপরীতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন। শিল্পী চলচ্চিত্রটি ইংরেজি চলচ্চিত্র the Bodyguard-এর ছায়া অবলম্বনে চিত্রিত হয়েছে।

ব্যক্তিগত জীবনে রুনা লায়লা ১৯৯৯ সালে বাংলাদেশী চিত্রনায়ক আলমগীরের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তার মেয়ে তানি লায়লা ও দুই নাতি জাইন এবং অ্যারন।

পুরস্কার ও সম্মাননা:

স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার
জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী – দি রেইন (১৯৭৬)
বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী – যাদুর বাঁশি (১৯৭৭)
বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী – অ্যাক্সিডেন্ট (১৯৮৯)
বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী – অন্তরে অন্তরে (১৯৯৪)
বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী – তুমি আসবে বলে (২০১২)
বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী – দেবদাস (২০১৩)
বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী – প্রিয়া তুমি সুখী হও (২০১৪)
জয়া আলকিত নারী সম্মাননা – ২০১৬

ভারত থেকে তিনি যেসব পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন:
সায়গল পুরস্কার
সঙ্গীত মহাসম্মান পুরস্কার – ২০১৩
তুমি অনন্যা সম্মাননা – ২০১৩
দাদা সাহেব ফালকে সম্মাননা – ২০১৬

পাকিস্তান থেকে তিনি যেসব পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন:
নিগার পুরস্কার (১৯৬৮, ১৯৭০)
ক্রিটিক্স পুরস্কার
গ্র্যাজুয়েট পুরস্কার (২ বার)
জাতীয় সঙ্গীত পরিষদ স্বর্ণপদক

Please follow and like us:
20

Comments

comments