ডিম নিয়ে টুকিটাকি কিছু মজার তথ্য জানুন

0
182
ডিম নিয়ে টুকিটাকি

ডিম নিয়ে টুকিটাকি

আমাদের হাতের কাছেই সবকিছুর সমাধান ঘুরঘুর করে। কিন্তু আমরা তা জানতেই পারি না। কেউ  আমাদের ঘরে এসে জানিয়ে যাবে; এটুকু আশা করা আপাতত সম্ভব নয়। তবে অন্য অনেক মাধ্যম এখন আমাদের হাতের মুঠোই বন্দি। চাইলেই তথ্য হাজির! জিনের বাদশার কাছে যেতে হবে না; আলাদিনের চেরাগ লাগবে না। ইন্দ্রজাল আপনাকে জানিয়ে দেবে যা আপনি জানতে চান। হেয়ালি করে বলছি, তা ঠিক; তবে যার কথা বলছি তাকে তো এখন স্বপ্নেও দেখা যায়। বলছিলাম ইন্টারনেটের কথা। একটু  দেখুন না; শুধু একটি ডিম আপনার কত কাজেইনা আসতে পারে। এবার হেয়ালি নয় সত্যি বলছি:

১. পুষ্টিগুণ ঠিক রেখে বাচ্চাদের ডিম খাওয়াতে চাইলে ডিম আধা সিদ্ধ করুন ।
২. সিদ্ধ ডিমের খোসা ছাড়াতে গেলে অনেক সময় ডিমের সাদা অংশসহ উঠে আসে। এজন্য সিদ্ধ করতে দেয়ার পরপরই এক চিমটি সোডা দিয়ে দেবেন।
৩. ফ্রিজে ডিম রাখার সময় সরু অংশটি উপরের দিকে করে রাখুন। তাহলে ডিমটি বেশ কিছুদিন নষ্ট না হয়ে ঠিক থাকবে।
৪. যদি ডিমের ওমলেটটি ঠিকভাবে চান; তাহলে আগেই একটু দুধ মিশিয়ে দিন।
৫. রুক্ষ চুলের জন্য ডিম অসাধারণ এক প্রোটিন প্যাক। টকদই+ডিম+কলা+মেহেদি।
৬. ডিমের সমস্ত ক্যালরির বেশিরভাগ থাকে তার কুসুমে। একটা ডিমের সাদা অংশে মাত্র ৫০ ক্যালোরি।
৭. ফ্রিজ ছাড়া ডিম ঠিক রাখার জন্য চুনের পানিতে ডিম চুবিয়ে রাখুন। এভাবে দুসপ্তাহ রাখতে পারবেন।
৮. ডিম তেলে ভাজার আগে একটু লবণ তেলের মধ্যে ছিটিয়ে দিন। তাহলে ডিমটি কড়াইয়ে লেগে যাবে না।ভালোভাবে তুলতে পারবেন।
৯. সিদ্ধ ডিম তেলে ভাজার সময় কাঁটা চামচ বা ছুড়ি দিয়ে কেটে দিন। তাহলে তের ছিটকে পড়ার হাত থেকে রক্ষা পাবেন।
১০. আগুনে পুড়ে গেলে সাথেসাথে ডিমের সাদা অংশ লাগিয়ে দিন। আরাম তো হবেই, ফোসকা পড়বে না এবং দ্রুত সেরেও যাবে।

 

Please follow and like us:
20

Comments

comments

SHARE
Previous articleজিভ দেখে ডাক্তারের মতো রোগ ধরতে পারবেন আপনিও!
Next articleকেমন আছে বিদেশে বাংলাদেশি নারী শ্রমিকরা
আমি শারমিন আক্তার মুক্তা। আমি বাংলাদেশে বাস করি এবং জন্ম সূত্রে বাংলাদেশি। আমি খুব সাধারন একটা মেয়ে, ন্যায়বান, বন্ধুভাবাপন্ন, স্বাধীন মতাবলম্বী। আমি জটিলতা, অসততা, মিথ্যাবাদিতা পছন্দ করিনা। আমি সব কিছুর ভাল দিকটা চিন্তা করি। আমার দুর্বলতা হল আমি অন্য মানুষকে খুব সহজেই বিশ্বাস করি। আমার শখ বই পড়া ওগান শোনা ।