যেসব দেশের মহিলারা সবথেকে বেশি বিশ্বাসঘাতক হয়

0
9
যেসব দেশের মহিলারা সবথেকে বেশি বিশ্বাসঘাতক

যেসব দেশের মহিলারা সবথেকে বেশি বিশ্বাসঘাতক

মহিলা কখন অসতী হন? অথবা পুরুষ কেন তাঁর স্ত্রীর প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা করেন। সেটা কি তাঁদের জাতি বা দেশের ওপর নির্ভর করে? কনডম তৈরির আন্তর্জাতিক কোম্পানি ‘ডিউরেক্স’ কিন্তু তাদের এক সমীক্ষায় এমনই একটি তালিকা তৈরি করেছে৷

১) থাইল্যান্ড: থাইল্যান্ডের প্রায় ৫১ শতাংশ মানুষ কোনও না কোনও সময় তাদের পার্টনারের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে৷

২) ডেনমার্ক: ডেনমার্কের প্রায় ৪৬ শতাংশ মহিলা-পুরুষ জীবনে অন্তত একবার হলেও জীবনসঙ্গীর সঙ্গে ছলনা করেছে৷

৩) ইতালি: প্রাচীন সভ্যতা আর আধুনিকতার পাশাপাশি মনোরম সমুদ্রসৈকত, আলপাইন লেক, আল্পস পর্বতমালার সমন্বয়ে গঠিত ইতালি পর্যটকদের জন্য এক অনন্য আকর্ষণীয় গন্তব্য৷ কিন্তু সেই ইতালিরও প্রায় ৪৫ শতাংশ মানুষ বিশ্বাসঘাতক৷

৪) জার্মানি: ইতালির মতো কর্মনিষ্ঠ জার্মানদের মধ্যেও ছলনার প্রবণতা প্রবল৷ এ দেশেরও মোট জনসংখ্যার প্রায় ৪৫ শতাংশ মহিলা-পুরুষ জীবনে নিজ পার্টনারকে ঠকিয়েছে৷

৫) ফ্রান্স: ফ্রান্স বললেই মনে পড়ে ভালোবাসার ‘পারি’, মানে প্যারিসকে৷ অথচ এই ভালোবাসা কিন্তু সারা জীবনের জন্য কাউকে ভালোবাসা না-ও হতে পারে৷ একই সময়ে একাধিক মানুষের প্রতি ভালোবাসা কোনও অদ্ভুতুড়ে কাণ্ড নয় ফরাসিদের কাছে৷ আর সে কারণেই হয়ত ফরাসিদের ৪৩ শতাংশ মানুষ নিজের সঙ্গীর প্রতি বিশ্বাসী নয়৷

৬) নরওয়ে: নরওয়ের মোট ৪১ শতাংশ মহিলা-পুরুষ দাম্পত্য সম্পর্কে ছলনা বা মিথ্যাচারের আশ্রয় নেয় বলে জানাচ্ছে ‘ডিউরেক্স’-এর এই সমীক্ষা৷

৭) বেলজিয়াম: বেলজিয়ামের ৪০ শতাংশ মানুষ কোনও না কোনও সময় তাদের পার্টনারের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে৷

৮) ব্রিটেন: নিজের সঙ্গী থাকার পরও অন্য মহিলা বা পর-পুরুষের প্রতি আকর্ষিত হয়ে থাকে যুক্তরাজ্যের প্রায় ৩৬ শতাংশ মানুষ৷ অন্যের সঙ্গে সম্পর্কেও জড়িয়ে পড়ে তারা৷

Please follow and like us:
20

Comments

comments