অবাক হবেন অতল সমুদ্রের অবাক বিস্ময় জানলে !

0
5
অবাক হবেন অতল সমুদ্রের অবাক বিস্ময়

অবাক হবেন অতল সমুদ্রের অবাক বিস্ময়

সম্প্রতি সমুদ্রের অতলে দুই প্রজাতির মাছ পাওয়া গিয়েছে যারা তাদের উদরে আগুন জ্বালাতে পারে!

ভড়কে যাবেন না।আপাতদৃষ্টিতে তা মনে হলেও ঘটনা আসলে তা নয়। এই দুই প্রজাতির মাছের পেটে এক ধরনের ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গিয়েছে যা তাদের পেটের অভ্যন্তরে এক ধরনের থলিতে আগুন জ্বালাতে সাহায্য করে। হঠাৎ দেখলে মনে হয় যে মাছের পেটে আগুন জ্বলছে।এদের সাধারণ নামকরণ করা হয়েছে “আয়নাপেট” এবং “পিপের ন্যায় চক্ষু”।

এই মাছদ্বয় তাদের উদরে যে থলে রয়েছে তার দিক পরিবর্তন করতে পারে, আলো জ্বালতে সাহায্য করতে পারে এবং এই আলোকে বিকশিত করতে পারে। তাদের শরীরের নিচের অংশ একটি স্বচ্ছ পর্দার ন্যায় কাজ করে যা সমুদ্রের গভীরে সাঁতার কাটতে কিংবা আলো জ্বেলে দিক নির্দেশ করতে তাদের সাহায্য করে থাকে। বিজ্ঞানীরা এই দুই প্রজাতির নাম দিয়েছেন মোনাকোয়া নিগার এবং মোনাকোয়া গ্রিজিয়াস।

এই মাছগুলোকে সাধারণত সমুদ্রের উপরিতল থেকে ১৩০০-৩০০০ ফিট গভীরে পাওয়া যাবে।এরা সমুদ্রের এমন অঞ্চলে থাকে যেখানে আলো আঁধারের এক ধরনের খেলা চলতে থাকে এবং সূর্যের রশ্নি এখানে ভালভাবে পৌঁছতে পারে না। তখন তারা পথ চলাফেরার জন্য তাদের শরীরের অভ্যন্তর থেকে এই সাহায্যকারী আলোর ব্যবহার করে থাকে।কিন্তু বিজ্ঞানীরা ধারণা করছেন যে, এই মাছগুলো পরস্পরের সাথে যোগাযোগ করতে ও খাবার খুঁজতে এই আলোর ব্যবহার করে থাকে।

Please follow and like us:
20

Comments

comments

SHARE
Previous articleএই নয়টি লক্ষণ না থাকলে আপনি এখনো ধনী হবেন না
Next articleগাছকে বিয়ে করবেন তারকা জয়া আহসান?
আমি শারমিন আক্তার মুক্তা। আমি বাংলাদেশে বাস করি এবং জন্ম সূত্রে বাংলাদেশি। আমি খুব সাধারন একটা মেয়ে, ন্যায়বান, বন্ধুভাবাপন্ন, স্বাধীন মতাবলম্বী। আমি জটিলতা, অসততা, মিথ্যাবাদিতা পছন্দ করিনা। আমি সব কিছুর ভাল দিকটা চিন্তা করি। আমার দুর্বলতা হল আমি অন্য মানুষকে খুব সহজেই বিশ্বাস করি। আমার শখ বই পড়া ওগান শোনা ।