পুরুষদের যৌন সক্ষমতা ধ্বংস করছে পর্ন

0
13
পুরুষদের যৌন সক্ষমতা

 পুরুষদের যৌন সক্ষমতা

ইন্টারনেটে পর্ন দেখার ফলে প্রতি ১০ জন যুবকের একজনের যৌন মিলনের সময় লিঙ্গোত্থানে সমস্যা দেখা দিচ্ছে। এমনটাই বলেছেন, যুক্তরাজ্যের লিঙ্গ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্ড্রু স্মাইলার।

তিনি বলেন, অনলাইনে সহজেই সীমাহীন পর্ন সহজলভ্য কারণে স্বাস্থ্যবান যুবকেদরও যৌন সমস্যা দেখা দিচ্ছে।

তিনি ব্রিটেনের দৈনিক দ্য ইনডিপেনডেন্টকে বলেন, “এমন সমস্যা নিয়ে আমার কাছে আসাদের বেশিরভাগেরই বয়স ১৩ থেকে ২৫।”

তিনি বলেন কেউ যদি প্রতিদিন ১৫ মিনিট করে টানা পাঁচ বছর পর্ন দেখে এবং হস্তমৈথুন করে তাহলে কোনো নারীর সঙ্গে যৌন মিলন করতে গিয়ে তার আর লিঙ্গোত্থান হবে না।

২০১৪ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে, পুরুষদের এক তৃতীয়াংশই প্রতিদিন পর্ন দেখেন। আর স্মার্টফোনের সহজলভ্যতা এবং দ্রুততর ইন্টারনেটে সংযোগের ফলে এই সংখ্যা এখন আরো অনেক বেশি বেড়েছে।

যুক্তরাজ্যের নটিংহাম বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের মনোযৌনতা বিষয়ক চিকিৎসক ড. অ্যাঞ্জেলা গ্রেগরি বলেন, “পুরুষরা মানসিক এবং শারীরিক উভয়ভাবেই নারীর সাথে বাস্তব যৌন মিলনের সময় স্বাভাবিক উদ্দীপনা ও উত্তেজনার প্রতি সংবেদনশীলতা হারিয়ে ফেলেছেন।”

পুরুষদের যৌন সক্ষমতা

তিনি বলেন, “অনেকে আবার অতিযৌনায়িত হয়ে পড়েছেন এবং হরহামেশাই যৌন উত্তেজনা বোধ করছেন। এটা অনেকটা খুজলি-পাঁচড়ার মতো যাতে একবার আঁচড় কাটলে সারাক্ষণই তা মনের ভেতরে বিরাজ করে।”

ড. গ্রেগরির মতে অনেক পুরুষের মধ্যে মাদকাসক্তির মতোই পর্ন আসক্তি সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি বলেন তার কাছে প্রায়ই লিঙ্গোত্থান ব্যর্থতার সমস্যা নিয়ে এমন যুবকরা আসেন যারা তাদের এই সমস্যার পেছনে পর্নকে দায়ী করতে চান না। কারণ তাদের মতে পর্ন দেখা স্বাভাবিক একটি বিষয়।

তবে সৌভাগ্যক্রমে পর্নজনিত লিঙ্গোত্থান সমস্যা সহজেই নিরাময়যোগ্য যদি আপনি স্বাস্থ্যবান পুরষ হন। আপনি যদি হস্তমৈথুন বন্ধ করতে পারেন তাহলে সহজেই স্বাভাবিক লিঙ্গোত্থান ক্ষমতা পুনরায় ফিরে আসবে।

তিনি বলেন, টানা ৯০ দিন পর্ন দেখা ও হস্তমৈথুন করা বন্ধ রাখতে পারলে পুরুষদের লিঙ্গোত্থান সমস্যা দূর হয়ে যাবে। তবে সপ্তাহে ১ থেকে তিনবার পর্ন দেখার ফলে খুব বেশি সমস্যা হয় না।

এছাড়া পর্ন দেখার ফলে পুরুষদের মনে যৌনতা সম্পর্কে অস্বাভাবিক ধ্যান-ধারণাও সৃষ্টি হতে পারে। পর্ন মুভিতে সাধারণত খুব সহজেই যৌনমিলন ঘটে। সবাই খুব সহজেই যৌনতায় লিপ্ত হয় এবং কেউ কখনো না বলেন না।

কিন্তু বাস্তবে মানুষ সব সময়ই যৌন মিলনের জন্য প্রস্তুত থাকেন না। এছাড়া পর্ন দেখার ফলে মানুষের দেহের যৌন আকর্ষণীয়তা সম্পর্কেও ধারণা বদলে যায়। নারী বা পুরুষদের কোনো ধরনের দৈহিক কাঠামো বেশি আকর্ষণীয় আর কোন ধরনের দৈহিক কাঠামো আকর্ষণীয় নয় সে সম্পর্কিত ধারণাও বদলে যায় এবং অবাস্তব প্রত্যাশা তৈরি হয়।

সূত্র: দ্য ইনডিপেনডেন্ট

Please follow and like us:
20

Comments

comments