আদায় নির্মূল ক্যান্সার- ক্যান্সার নিরাময়ে আদার ভুমিকা

0
25
আদায় নির্মূল ক্যান্সার

আদায় নির্মূল ক্যান্সার

সারা পৃথিবীতেই ভয়ানক এক স্বাস্থ্য সমস্যার নাম ক্যান্সার। প্রতি বছর লাখ লাখ মানুষ মারা যায় ক্যান্সারে। এই রোগের সুনিশ্চিত কোন চিকিৎসাও নেই। তবে আশার কথা হচ্ছে, সম্প্রতি গবেষকেরা খুঁজে পেয়েছেন এমন কিছু ভেষজ যেগুলো শরীরের নির্দিষ্ট অংশে পৌঁছে খুব সহজেই একটু একটু করে কমিয়ে দিতে পারে ক্যান্সারের প্রকোপকে। আর সেগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি ভেষজ হচ্ছে আদা।

আমাদের নিত্য ব্যবহার্য মশলার নাম আদা। প্রোস্টেটে তৈরি হওয়া ক্যান্সারকে একটু হলেও প্রতিরোধ করতে ও দমিয়ে রাখতে আদার জুড়ি নেই বলে সম্প্রতি জানিয়েছেন গবেষকেরা। এক্ষেত্রে এক ধরণের বিশেষ রকমের আদাকে ব্যবহার করেন তারা। গবেষকদের মতে- আদা টিউমার প্রতিরোধে বেশ কার্যকরী। সেই সঙ্গে ক্যান্সার প্রতিরোধেও। আদার ভেতরে এমন কিছু উপাদান আছে যেগুলো একজন মানুষের শরীরের কোষগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। সেগুলোকে ইচ্ছেমতন তৈরি, সংকুচিত কিংবা ধ্বংসও করে ফেলতে পারে। তাই আদা গ্রহণ করলে সেটি শরীরের প্রোস্টেটে জন্মানো ক্যান্সার বহনকারী কোষগুলোকেও সংকুচিত হয়ে প্রোস্টেটে থাকতেই বাধ্য করে। ফলে ক্যান্সার প্রোস্টেটের বাইরের কোষে ছড়াতে পারে না। সেই সঙ্গে মাঝে মাঝে ক্যান্সারের কোষগুলোকে ধ্বংসও করে ফেলে আদার এই কার্যকরী শক্তি। এতদিন মশলা হিসেবে ব্যবহৃত শিকড়জাতীয় এই জিনিসটি নানাবিধ শারীরিক প্রদাহ রোধে, গ্যাস্ট্রিকসংক্রান্ত ব্যপারে এবং জরায়ুর ক্যান্সারের কোষ ধ্বংসে চিকিৎসাশাস্ত্রকে বেশ সাহায্য করে এসেছে।

মূলত, আদার ভেতরে থাকা জিনজেরোলস পদার্থটির কারণেই এমনটা সম্ভব হয় বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। জিনজেরোলস যেমন শারিরীক বিভিন্ন ধরনের প্রদাহ রোধ করে ফেলে খুব সহজে, ঠিক তেমনি কোষকে নিয়ন্ত্রণও করতে পারে। আর তাই কেমোথেরাপির নানা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াকে এড়িয়ে চলতেই বর্তমানে কেমোর বদলে আদাকেই প্রাধান্য দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে। চিকিৎসকদের মতে, খুব বিশেষ কোন পদ্ধতিতে নয় বা অনেকটা করেও নয়।

প্রতিদিন রান্নায় হালকা আদা বাটা বা আদা গুঁড়ো রাখলেই সেটি শরীরকে ক্যান্সারের হাত থেকে অনেকটা দূরে রাখতে পারে। সেই সঙ্গে রাস্তাঘাটে খানিকটা আদাকে মশলা হিসেবেও চিবুতে পারেন আপনি। তাই এখুনি ক্যান্সার প্রতিরোধে খানিকটা করে আদা গ্রহণ করুন খাবারের সঙ্গে৷

Please follow and like us:
20

Comments

comments

SHARE
Previous articleরঙবাহারি স্বর্গের পাখি- এক অজানা পাখির গল্প
Next articleফেইসবুক লগআউট করতে ভুলে গেলে কি করবেন?
আমি শারমিন আক্তার মুক্তা। আমি বাংলাদেশে বাস করি এবং জন্ম সূত্রে বাংলাদেশি। আমি খুব সাধারন একটা মেয়ে, ন্যায়বান, বন্ধুভাবাপন্ন, স্বাধীন মতাবলম্বী। আমি জটিলতা, অসততা, মিথ্যাবাদিতা পছন্দ করিনা। আমি সব কিছুর ভাল দিকটা চিন্তা করি। আমার দুর্বলতা হল আমি অন্য মানুষকে খুব সহজেই বিশ্বাস করি। আমার শখ বই পড়া ওগান শোনা ।