উপকারে আসবে ‘রসুনের সঙ্গে মধু মিশিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন’

0
22
উপকারে আসবে 'রসুনের সঙ্গে মধু মিশিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন'
'রসুনের সঙ্গে মধু মিশিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন'
উপকারে আসবে ‘রসুনের সঙ্গে মধু মিশিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন’

উপকারে আসবে  ‘রসুনের সঙ্গে মধু মিশিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন’

সৌন্দর্য ও রূপ সচেতনদের জন্য শৈলী শুরু করছে নতুন বিভাগ ‘সৌন্দর্য সমাধান’। রূপ বিশেষজ্ঞ ফারনাজ আলম আপনার সৌন্দর্য বিষয়ক জিজ্ঞাসা, সমস্যা ও প্রশ্নের উত্তর দেবেন শৈলীতে। সমস্যা আপনার, সমাধান আমাদের।

প্রশ্ন : আমার বয়স ততো বেশি নয়; তবে কিছুদিন ধরে লক্ষ্য করছি আমার স্কিনে রিংকেলের মতো, এক্ষেত্রে আমি কী করব?

উত্তর : সাধারণত আমরা ধরেই নিই বয়স হলেই রিংকেল পড়বে; কিন্তু স্কিনের সমস্যার কারণেও রিংকেল পড়ে, তাই আপনাকে অ্যান্টি এজিং ফেসিয়াল নিতে হবে। তাতে আপনার রিংকেল পড়া প্রটেক্ট করবে।

প্রশ্ন :নরম গোলাপি ঠোঁট পেতে কী ব্যবহার করতে পারি?

উত্তর :প্রতি রাতে ঘুমানোর আগে পেট্রোলিয়াম জেলের সঙ্গে অল্প লবণ মিশিয়ে ঠোঁটে আলতোভাবে ম্যাসাজ করে ধুয়ে নিন। এতে ঠোঁটের মরা কোষ সরে গিয়ে উজ্জ্বলতা আসবে এবং অনেক মোলায়েম ও দেখতে গোলাপি লাগবে।

প্রশ্ন :ঘরোয়া পদ্ধতিতে মাথার খুশকি দূর করার কোনো উপায় আছে কি?

উত্তর : খুশকি মূলত ফাঙ্গাসের সংক্রমণ। ফাঙ্গাস দূর করতে রসুন বাটা ব্যবহার করতে পারেন। তবে রসুনের গন্ধ অনেকের কাছে ভালো নাও লাগতে পারে। সেক্ষেত্রে রসুনের সঙ্গে মধু মিশিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন এবং মেথি বাটাও মাথায় মেখে রাখতে পারেন আধা ঘণ্টা। তারপর শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ধুয়ে নিন ভালো করে। এতে করে খুশকি অনেক কমে যাবে।

প্রশ্ন :ব্রণের দাগ সারাতে কী ব্যবহার করতে পারি?

উত্তর : ত্বক থেকে ব্রণের দাগ সারাতে আলুর রস ব্যবহার করতে পারেন। আলু কেটে বেল্গন্ড করে রস ত্বকে দিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন একবার এভাবে ত্বকে আলুর রস ব্যবহার করুন। এ ছাড়া ভিটামিন ই ক্যাপসুল ত্বকের ব্রণ রোধ করে।

প্রশ্ন :সূর্যের পোড়া দাগ পিগমেনটেশন দূর করতে কী ব্যবহার করব?

উত্তর : মুলতানি মাটি সমানভাবে কার্যকর। আমল্ড অয়েল বা ক্যাস্টর অয়েলের সঙ্গে মুলতানি মাটি মিশিয়ে মুখে লাগান। এটি ত্বকের পিগমেনটেশন দূর করার সঙ্গে ত্বক মোলায়েম করতে সাহায্য করে।

প্রশ্ন :ঝলমলে চুল পেতে কী ব্যবহার করতে পারি?

উত্তর :প্রথমে একটা পাকা কলা খণ্ড করে নিন। তারপর ২ টেবিল চামচ নারকেল দুধ, ১ টেবিল চামচ নারকেল তেল এবং ২ টেবিল চামচ মধু একসঙ্গে মিশিয়ে মসৃণ পেস্টের মতো তৈরি হওয়া পর্যন্ত বেল্গন্ড করে নিন। আপনার ডিপ কন্ডিশনিং হেয়ার মাস্ক তৈরি। এরপর চুল ভালো করে আঁচড়ে নিন। পরে এই মিশ্রণটি চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভালো করে লাগিয়ে নিন। চুলের গোড়া আলতো করে ম্যাসাজ করে নিন ৫ মিনিট। এরপর একটি শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে চুল ও মাথা ঢেকে রাখুন। ৩০ মিনিট এভাবে রেখে আপনার সাধারণ শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। প্রথম ব্যবহারেই চুলে আমূল পরিবর্তন। তখন আপনার নজর পড়বে। সপ্তাহে মাত্র ১ বার ব্যবহারেই পেতে পারেন ঝলমলে চুল।

প্রশ্ন :মুখের ব্রণের কালো দাগ দূর করতে কী করব?

উত্তর : কাঁচা ব্রণে সমপরিমাণ লবঙ্গ, তুলসী পাতা, নিম পাতা, পুদিনা পাতা একসঙ্গে পেস্ট করে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রাখলে সেখানে দাগ হবে না। ব্রণ শুকিয়ে যাওয়ার পর মুখে চিনি আর দারুচিনি বাটা একসঙ্গে পেস্ট করে লাগাতে পারেন। লবঙ্গ বা দারুচিনি ত্বকে লাগানোর পর একটু জ্বালা করবে, এতে কোনো ক্ষতি নেই।

প্রশ্ন : চোখের কালি দূর করার কোনো উপায় আছে কি? 

উত্তর : শসা বা আলু ছেঁচে চোখের ওপর ২০ মিনিট রেখে দিন। এ ছাড়া ব্যবহৃত টি ব্যাগ কিছুক্ষণ চোখের ওপর রেখে দিলেও কাজে দেবে এবং পেস্তাবাদাম বাটার সঙ্গে অল্প মধু লাগিয়ে ব্যবহার করলেও চোখের কালি দূর হয়।

প্রশ্ন : ত্বককে কোমল ও মসৃণ করে তোলার জন্য কী ব্যবহার করতে পারি?

উত্তর : এক টেবিল চামচ মিহিদানার চিনি, এক টেবিল চামচ চালের গুঁড়া, এক চা চামচ কাঠবাদামের গুঁড়া, পরিমাণমতো গ্রিন টি ও গোলাপজল একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার মিশ্রণটি মুখে ও গলায় ভালো করে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে কিছুক্ষণ ঘষে ধুয়ে ফেলুন। মরা কোষ সহজে দূর হয়ে যাবে। ত্বক হয়ে উঠবে কোমল ও মসৃণ।

প্রশ্ন : চোখের পাশের বলিরেখা মোছার কোনো উপায় আছে কি?

উত্তর :১ টেবিল চামচ মধু হালকা গরম করে নিন। এই গরম মধুর সঙ্গে একটা ডিমের কুসুম ভালো করে মেশান। সঙ্গে যোগ করুন মিহি করে গুঁড়া করা ওটস ১ টেবিল চামচ। মিশ্রণ বেশি ঘন হয়ে গেলে কাঁচা দুধ যোগ করুন। এবার মিশ্রণ চোখের আশপাশে মেখে রাখুন ঠিক ১০ মিনিট। একটুও বেশি রাখবেন না। ১০ মিনিট পর প্রথমে উষ্ণ পানি ও পড়ে সাধারণ পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। মাত্র এক মাস অবলম্বন করে দেখুন এই পদ্ধতিগুলো সপ্তাহে তিনবার করে। তথ্য সূত্র- দৈনিক সমকাল

Please follow and like us:
20

Comments

comments