জার্মানীতে আসতে চাইলে- বিস্তারিত জানতে লেখাটি পড়ুন

0
136
জার্মানীতে আসতে চাইলে- বিস্তারিত জানতে লেখাটি পড়ুন
জার্মানীতে আসতে চাইলে- বিস্তারিত জানতে লেখাটি পড়ুন

জার্মানীতে আসতে চাইলে

আমরা শুরু করতে যাচ্ছি বিভিন্ন দেশের পড়াশুনা করতে যাওয়া , ইমিগ্রেশন নিয়ে থেকে যাওয়া, ভ্রমণ করতে যাওয়া নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদন।

প্রবাসী জীবন ব্লগে এখন থেকে নিয়মিত বিভিন্ন দেশের শিক্ষা সংস্কৃতি সংক্রান্ত সকল বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করা হবে। আজকে নিয়ে এলাম জার্মানী বিষয়ে।

জার্মানীতে আসতে চাইলে, আপনাকে কি কি করতে হবে, কেনো করতে হবে, কিভাবে করতে হবে, কেনো আপনি জার্মানী আসবেন এই বিষয় গুলো নিয়েই আজকের লেখাঃ

জার্মানী আসতে চাইলেঃ

প্রথমে বলে নেই জার্মানিতে পড়াশুনা করতে কোন টাকা পয়সা লাগে না। ইউনিভার্সিটি তে কোন প্রকার টিউশন ফী প্রদান করতে হবে না। এখন প্রশ্ন হল তাইলে কি জামানিতে ফ্রী যাওয়া যাবে ? উত্তর না। তাহলে কোথায় কত টাকা খরচ হবে জার্মানিতে গেলে? এক নজরে দেখে নিন তাহলে।

banner-germany

জার্মানী আসতে চাইলে যে সকল বিষয় জানা দরকারিঃ

  • জার্মানি তে পড়াশুনা করতে কোন প্রকার টিউশন প্রদান করতে হয় না। সম্পূর্ণ বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুযোগ একমাত্র জার্মানি তেই আছে সব লেভেলে যেমন ব্যাচেলর, মাস্টার্স, পি এইচ ডি। আপনার পছন্দ মত সব সাবজেক্ট এ পড়াশুনা করতে পারবেন।
  • একাডেমীক রেজাল্ট মোটামুটি ভাল থাকলে আপনি ভর্তি হতে পারবেন। আর ব্যাচেলর এর ক্ষেত্রে মোটামুটি ইংলিশ এ পরাশুনার ক্ষেত্রে আপনাকে একটু খেয়াল রাখতে হবে। ব্যাচেলর এ ইংলিশ এ খুব কম সাবজেক্ট পাওয়া যায়। ব্যাচেলর এ ভর্তির ক্ষেত্রে অন্যান্য রেকয়ারমেন্টস এর সাথে যে কুয়ালিফিকেসন আপনাকে এক্সট্রা যোগ করতে হবে সেটা হল উচ্চ্য মাধ্যমিক পাশের পর আপনি বাংলাদেশের কোন ইউনিভার্সিটি তে কমপক্ষে ১ বছর পড়াশুনা করেছেন তার প্রমাণাদি সংযুক্ত করতে হবে। কারন জার্মান ইউনিভার্সিটি তে পড়তে হলে বাংলাদেশের ১২ বছর + ১ বছরের বাংলাদেশে ইউনিভার্সিটি স্টাডি লাগে।
  • আপনাকে ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ এর উপর দক্ষতার সার্টিফিকেট দেখাতে হবে। মানে IELTS 5.5 ব্যাচেলর এর ক্ষেত্রে, TOFEL 550 . মাস্টার্স, পি এইচ ডি এর ক্ষেত্রে 6.0 -7.0 থাকতে হবে ।
    মাস্টার্স, পি এইচ ডির ক্ষেত্রে একটু সহজে ভর্তি হওয়ার পসিবিলিটি থাকে।
  • কোন প্রকার এন্ট্রান্স এক্সাম দিতে হয় না। ভিসার আবেদনের ক্ষেত্রে ইন্ডিয়া দৌড়া দৌড়ী করতে হয় না । বাংলাদেশে এ সম্বব।
  • জার্মানির ক্ষেত্রে ব্লক অ্যাকাউন্ট দেখাতে হবে। টাকার পরিমান ৮০৪০ ইউরো। বাংলা টাকায় ৮ লক্ষ ৪ হাজার টাকা ।অ্যাপ্লিকেশান ফী দিতে হয় না । তবে যে সকল ইউনিভার্সিটি তে Uni-assist এর মাধ্যমে আবেদন করতে হয় সেই ক্ষেত্রে ৬৮ ইউরো প্রথম ইউনিভার্সিটি এর ক্ষেত্রে একের অধিক ইউনিভার্সিটি তে অ্যাপ্লাই করলে বাকি গুলোর ক্ষেত্রে ১৫ ইউরো করে প্রদান করতে হবে ।
  • জার্মানি তে পড়াশুনার পাশাপাশি কাজের ভাল ক্ষেত্র আছে । পড়াশুনা শেষে আপনি চাইলে   Skilled Migrant হিসেবে জব করতে পারবেন। পড়াশুনার পর ও আপনাকে ১ বছরের মত সময় দেয়া হবে জব খুজার জন্য । জব পেলে থেকে জেতে পারবেন আজীবন । পার্মানেন্ট রেসিডেন্ত পেতে ৮ বছর এর মত লেগে যাবে । আর সব শেষে পড়াশুনার মান বিশ্বব্যাপী গ্রহন যোগ্য। খুব উন্নত পরিবেশে  পড়াশুনা করা যায়। যারা আগামী সেমিসটারে আবেদন করবেন তারা প্রস্তুত হয়ে যান।

ভর্তির যোগ্যতা :

এখানে ব্যাচেলর্স প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য কমপক্ষে ১২ বছরের শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হয়। অর্থাৎ ভর্তির জন্য নূ্যনতম এইচএসসি পাস থাকতে হবে। ব্যাচেলর্স ডিগ্রির পর মাস্টার্সে ভর্তির আবেদন করা যাবে। মাস্টার্সের পর আরও উচ্চতর শিক্ষার ব্যবস্থাও এ দেশে রয়েছে।

জার্মানী আসতে চাইলে কত টাকা লাগবে ও যা ডকুমেন্টস লাগবেঃ

৮০৪০ ইউরো ব্লক অ্যাকাউন্ট তে দেখানোর অ্যাবিলিটি থাকতে হবে। এই টাকাটা ভিসা আবেদনের পূর্বে বাংলাদেশের যে কোন ব্যাঙ্কে ব্লক অ্যাকাউন্ট এ রাখতে হবে। ইউনিভার্সিটি থেকে Acceptance letter পাওয়ার পর আপনাকে ব্লক অ্যাকাউন্ট এ টাকা রাখতে হবে।

ভিসা নিশ্চিত হলে বাংলাদেশের অ্যাকাউন্ট থেকে জার্মানির ব্যাঙ্কে ট্রান্সফার করতে হবে। এই ব্যাপারে এমব্যাসি আপনাকে সাহায্য করবে। প্লাস ভিসা প্রসেস  ( ইউনিভার্সিটি তে আবেদন+ পার্সেল পাঠানো+ভিসা অ্যাপলিকেশন ফী ইত্যাদি ইত্যাদি) এর জন্য 500 ইউরো এবং ভিসা পেলে বিমান ভাড়া ৭০০ ইউরো প্লাস ১০০০ ইউরো ক্যাশ নিয়ে আসতে হবে। মোট ১০ লক্ষ টাকা ধরে নিন।

আক্ষরিক অর্থে খরচটা হচ্ছে ৫০০+৭০০+১০০০=২২০০ ইউরো। ব্যাংকের টাকাটা আপনি জার্মানিতে আসার পর মাসে মাসে ৬৭০ ইউরো করে তুলে নিতে পারবেন। সম্পূর্ণ টাকাটা আপনি একসাথে তুলতে পারবেন না আর আরেক টা জিনিস মনে রাখবেন প্রাথমিক অবস্থায় ৫/৬ মাস কোন কাজ করতে পারবেন না ধরে নিন।

ভাষা, রাস্তাঘাট, পরিবেশ সব কিছুর পরিচিতির একটা বেপার আছে। উপরের হিসাব যদি কেও মিলাতে না পারেন  তাহলে জার্মানির চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে দেন। এই ব্যাপারে কারো কোন প্রশ্ন থাকলে জানাবেন। আশা করি সবার জার্মানির খরচের ব্যাপারে আর কোন মন্তব্য থাকবে না।

আবেদন ও ভিসাঃ

জার্মানিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ওয়েবসাইটগুলোতে ভর্তির আবেদন ফরম পাওয়া যায়। যে বিভাগে ভর্তি হতে চান, সেই বিভাগে ঢুকে আবেদন করতে পারেন। এখানে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের কথা উল্লেখ থাকে। তবে ভর্তির জন্য নম্বরপত্রসহ শিক্ষাগত যোগ্যতা, বাংলাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাড়পত্র, জার্মান বা ইংরেজি ভাষার টেস্ট স্কোর, পাসপোর্টের ফটোকপি দরকার হবে। জার্মানিতে উচ্চশিক্ষার ভিসার জন্য প্রথম বছরের জন্য সাত হাজার ৬০০ ইউরো ফান্ড ও শিক্ষাকালীন অর্থনৈতিক পরিকল্পনা দেখাতে হবে। বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য জার্মানি দূতাবাসে যোগাযোগ করতে পারেন।

ভাষার দক্ষতাঃ

জার্মানির অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ে জার্মান ভাষায় পাঠদান করা হয়। এ ক্ষেত্রে জার্মান ভাষার ওপর কোর্স করতে হবে। আর যেসব বিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজিতে পড়ানো হয় তার জন্য ভালো আইইএলটিএস বা টোফেল স্কোর দরকার হয়।

জার্মানির কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট ঠিকানাঃ

– University of Hamburg:- http://www.uni-hamburg.de

– University of Bonn:- http://www.uni-bonn.de

– University of Augsburg:- http://www.uni-augsburg.de

– University of Bremen:- http://www.uni-bremen.de

– Ruprecht-Karls University:- http://www.uni-heidelberg.de

Please follow and like us:
20

Comments

comments