মজাদার রসগোল্লা রেসিপি- ঘরেই তৈরী করুন রসগোল্লা

0
229
মজাদার রসগোল্লা রেসিপি- ঘরেই তৈরী করুন রসগোল্লা
মজাদার রসগোল্লা রেসিপি- ঘরেই তৈরী করুন রসগোল্লা

মজাদার রসগোল্লা রেসিপি- ঘরেই তৈরী করুন রসগোল্লা

কেমন আছো বন্ধুরা,অনেক দিন পর তোমাদের জন্য একটা মজাদার রেসিপি নিয়ে আসলাম… 🙂

নরম রসগোল্লা: (non spongy)
উপকরণ :

ছানার জন্য :

১ লিটার দুধ
২ টেবিল চামচ লেবুর রস

আমি ১/২ কাপ ছানা পেয়েছি.১/২ কাপ ছানা দিয়ে ৬ টা মিষ্টি হয়

অন্যান্য উপকরণ :
১/২ চা চামচ সুজি
১ চিমটি ময়দা
১ চিমটি এলাচ গুড়া
১/২ টেবিল চামচ চিনি

সিরার জন্য :
১ কাপ (খাড়া খাড়া) চিনি
৩ এবং ১ / ২ চাপ পানি.
২ টা এলাচ,ছোট এক টুকরা দারচিনি

প্রনালী :

ছানা:

যেকোন ছানা প্রধান মিষ্টির জন্য ছানার কোয়ালিটি ভীষন ইম্পোরটেন্ট. বিশেষ করে রসগোল্লা জাতীয় মিষ্টির জন্য.
ছানা নরম হলে,মিষ্টিও নরম হবে. শক্ত ছানার মিষ্টি শক্ত এবং chewy হয়.
ছানা বানাতে ভিনেগার ব্যাবহার করবেন না. ভিনেগার ভীষন স্ট্রং, ছানা খুব বেশি কার্ডল হয়ে যাবে.
লেবুর রস ,বাটারমিল্ক ব দই দিয়ে ছানা করুন. অথবা ময়রাদের মতো পুরোন ছানার পানি দিয়ে.

দুধ টগবগ করে ফুটে উঠলে চুলা বন্ধ করে দুধে লেবুর রস দিন. নাড়ুন.খুব বেশিক্ষন রাখবেন না. পানি আলাদা হয়ে যাবার সাথে সাথে হয় ছানার মধধে অনেক গুলো আইস কিউব দিয়ে দিন. আর বা হলে স্ট্রেইনারের উপর চিজক্লথ রেখে ছানা ঢেলেই ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিন.

ভাল করে চেপে নিন. রসগোল্লার ছানায় পানি থাকলে কিন্তু সিরায় দেবার সাথে সাথে খুলে যাবে.
আগে আম্মুরা ছানার পোটলা ঝুলিয়ে রাখতো, যাতে পানি ঝরে যায়. আমার এত সময় কই!😜
আমি যেই ফাকিবাযি করি, তা হলো ছানার পোটলা হাত দিয়ে যতটা পারি পানি চিপে ফেলে দিয়ে ,এক সেট নিউজপেপার বা কিচেন টিসু রেখে তার উপর ছানার পোটলা রেখে উপরে আরেক সেট নিউজপেপার বা কিচেন টিসু রেখে ভারি কিছু দিয়ে চাপা দেই. এক্সসেস পানি বে হয়ে যাবে. এরকম এক দুই বার রিপিট করলেই হবে.😁

মজাদার রসগোল্লা রেসিপি- ঘরেই তৈরী করুন রসগোল্লা
মজাদার রসগোল্লা রেসিপি- ঘরেই তৈরী করুন রসগোল্লা

যাই হোক মূল রেসিপিতে আসি.

১. সাড়ে তিন কাপ পানি ,১ কাপ চিনি আর এলাচ,দারচিনি দিয়ে সিরা বসিয়ে দিন. আমি এমন হাড়ি নিয়েছি যাতে সিরা হাড়ির গলা পর্যন্ত হয়,মানে , ৬ টা মিষ্টির জন্য যেনো এনাফ পানি হয়. আর ৬ টা মিষ্টি ফুলে উঠলে যেনো যথেষ্ট স্পেইস পায়. গায়ে গায়ে মিষ্টি লেগে গেলে,মিষ্টি চুপসে যাবে.
রসগোল্লার সিরা সব সময় পাতলা হবে. পানির মতো পাতলা সিরার জন্য মিষ্টি নরম হবে.
২. ছানা ভাল করে সুজি,মইদা,এলাচ গুড়া, চিনি দিয়ে মথে নিন. একদম আঠালো হতে হবে. ভালো মতো মথা না হলে মিষ্টি হবে ইটের মতো শক্ত.
আমি করি ফাকিবাযি. কিন্তু অব্যার্থ.গ্রাইন্ডার বা ফুড প্রসেসরে দিয়ে কয়েক সেকেন্ড পালস করুন. ২ বার বা ৩ বার ৪/৫ সেকেন্ড করে. ডান.😀
বেশ আঠালো হয়ে গেলে ভয় পাবেন না. হাতে ঘি মাখিয়ে শেপ করুন.
৩. সিরা ফুটে উঠলে মিষ্টি গুলো ছাড়ুন. ঢাকনা দিয়ে medium-হাই হিটে ১৫/২০ মিনিট জ্বাল দিন. মিষ্টি গুলো ফুলে দ্বিগুন বা ৩গুন হয়ে যাবে.খেয়াল রাখবেন সিরা যেনো ঘন না হয়ে যায়. এই জন্য সচ্ছ ঢাকনা হলে ভাল. ২০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে ১ কাপ গরম পানি যোগ করুন. এই পানি যোগ করাতে মিষ্টির শেইপ ঠিক থাকবে, চুপসে যাবে না. আবার ঢেকে দিয়ে ,জ্বাল কমিয়ে মাঝারি আচে ২৫/৩০ মিনিট জাল দিন. এবার ঢাকনা খুলে ১ কাপ গরম পানি যোগ করে চুলা বন্ধ করে ঢেকে রাখুন. ঠান্ডা হলে পরিবেশন করুন.
আরেকটা টেকনিকে করা যায়.একেবারে ফেইল প্রুফ. ওড়িয়া স্টাইলে,শেষের বার চুলা বন্ধ করার আগে পানি না ঢেলে, মিষ্টিগুলো সিরা থেকে তুলে অন্য একটি পাত্রে গরম পানি তে মিষ্টি গুলো ৫ মিনিট চুবিয়ে রেখে আবার তুলে গরম সিরাতে দিয়ে দিন. চুলা বন্ধ থাকবে.

Please follow and like us:
20

Comments

comments