ভালো চাকরির জন্য চাই উপযুক্ত সিভি

0
10
সিভি
সিভি
সিভি
অনেকে চাকরির জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আবেদন করতে করতে হয়রান কিন্তু ইন্টারভিউয়ের ডাক পাননা। শেষে হতাশ হয়ে পড়েন। কিন্তু শুধু আবেদন করলেই চলবে না আপনার আবেদনপত্রটি নিখুঁত কিনা তা আগে যাচাই করতে হবে। চাকরি পাওয়ার অন্যতম শর্ত নিখুঁত সিভি, আমরা বাংলায় বলে থাকি জীবনবৃত্তান্ত। জীবন বৃত্তান্তকে ইংরেজীতে দু’ভাবে বলা যায়- কারিকুলাম ভিটে ও রেজ্যুমে। দু’টি একই অর্থ বহন করে। মার্কিনরা ব্যবহার করে রেজ্যুমে আর বৃটিশরা ব্যবহার করে কারিকুলাম ভিটে বা সিভি।

একটি সঠিক সিভি আপনার ব্রান্ডিং করবে নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানের কাছে। একজন চাকরি প্রার্থী যেমন হন্যে হয়ে ঘুরছেন একটি ভালো চাকরির আশায় তেমনি একজন অভিজ্ঞ মানব সম্পদ ব্যবস্থাপক তার প্রতিষ্ঠানের জন্য একজন ভালো কর্মী খুঁজছেন। এর এই দুইয়ের মাঝে যোগসূত্র স্থাপন করবে নিখুঁত আবেদনপত্রসহ একটি গোছানো সুন্দর সিভি। অল্প সময়ের মধ্যে আপনাকে সিভি বা রেজ্যুমের মাধ্যমে নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তির নিকট আর্কষণীয় করে তুলতে হবে। একজন মানব সম্পদ ব্যবস্থাপক একটি জীবনবৃত্তান্তের জন্য বড়জোর এক মিনিট সময় ব্যয় করবেন। এই এক মিনিটে তার কাছে আপনাকে তুলে ধরতে হবে। আর সিভি পছন্দ হলেই তিনি আপনাকে ইন্টারভিউর জন্য ডাকবেন। তখন আপনি নিজেকে প্রমাণ করতে পারবেন আপনি ঐ পদের জন্য কতটুকু যোগ্য। সঠিক সিভি তৈরীর কিছু দরকারি টিপসঃ

সিভি ও রেজ্যুমের পার্থক্যঃ

রেজ্যুমে ও সিভির মূল অংশগুলো একই রকমের। রেজ্যুমে মূলত এক বা দুই পৃষ্ঠায় লেখা হয়। অন্যদিকে সিভি লেখায় পৃষ্ঠার সীমাবদ্ধতা নেই এবং স্বাভাবিকভাবেই বিবরণগুলোও হয় তুলনামূলক বিস্তারিত, এমনকি এখানে কয়েকজন সম্মানিত ব্যক্তির নাম-ঠিকানা (রেফারেন্স) উল্লেখ করা হয়ে থাকে। সাধারণত, মধ্যম বা উচ্চস্তরের চাকুরি (ক্যারিয়ার) অথবা ফেলোশীপের জন্য সিভি লেখা হয়।

সিভির ফরম্যাট

টার্গেটেড সিভিঃ

টার্গেটেড সিভি বা লক্ষের সিভি নির্দিষ্ট কাজের জন্য বিশেষভাবে তুলে ধরতে প্রার্থী আবেদন করে। কোনো ব্যক্তির ক্যারিয়ার জীবনের অর্জন এবং সক্ষমতাকে লক্ষ্য করে এ সিভি। যদি নির্দিষ্ট কোনো চাকরি বা কাজের জন্য সিভি প্রয়োজন হয় তার জন্য খুব ভালো ফরম্যাট এই সিভি।

ক্রোনোলোজিক্যাল সিভিঃ

ক্রোনোলোজি বলতে কালানুক্রম বোঝায়। কেউ একই ফিল্ডে থেকে চাকরি পাল্টাতে চায় তাহলে ক্রোনোলোজিক্যাল সিভি ভালো ফরম্যাট। এ ফরম্যাটে ক্যারিয়ার হিস্টোরি সাজাতে হয় কালানুসারে। অর্থাৎ সাম্প্রতিক চাকরির অবস্থানকে প্রথমে দিয়ে পর পর অন্য চাকরির অভিজ্ঞতা দিতে হবে।

ফাংশনাল সিভিঃ

ফাংশনাল বলতে প্রায়োগিক বোঝায়। কেউ যদি ক্যারিয়ার ট্র্যাক পরিবর্তন করতে চায় তাহলে ফাংশনাল সিভি ভালো। কারণ এ সিভিতে অর্জন এবং কাজকে হাইলাইট করা হয়। এমনকি দক্ষতা, প্রতিদ্বন্দ্বিতার উপাদান, বিশেষজ্ঞতা বিস্তারিতভাবে দিতে হয়। এধরণের সিভিতে কাজের ধরন এবং প্রতিষ্ঠানের নাম খুব একটা গুরুত্ব পায় না। ফাংশনাল সিভিতে কাজের দক্ষতাকে সবচেয়ে বেশি লাইন আপ করা হয় মনোযোগ আকর্ষণের জন্য।

অল্টারনেটিভ সিভিঃ

অল্টারনেটিভ সিভি বা বৈকল্পিক সিভি ক্রিয়েটিভ ফিল্ডে কাজ করতে আগ্রহীদের জন্য। অ্যাড ডিজাইন, মিডিয়া অথবা পাবলিক রিলেশনের মতো ব্যক্তিনির্ভর কাজের জন্য এ সিভি উপযুক্ত।

সিভি বাদ পড়ার কারণঃ

 

  • টু দি পয়েন্টের অভাব থাকলে।
  • সিভি অতিরিক্ত তথ্য দিয়ে বড় করলে।
  • সফলতার বিষয়কে প্রাধান্য না দিলে।
  • ব্যাকরণজনিত ভুল থাকলে।
  • একটি সিভি সব জায়গায় পাঠানো।
  • সিভির অনির্দিষ্ট লক্ষ্য।
  • প্রয়োজনীয় তথ্য না থাকলে।
  • যোগাযোগ বিষয়ক তথ্য বারবার পরিবর্তন করলে।

***  সিভি সবসময় কম্পিউটার কম্পোজ করে পাঠাবেন। অনেক প্রতিষ্ঠান সিভির সাথে হাতে লিখা আবেদনপত্র চায়, সুন্দর করে পরিষ্কারভাবে লিখে আবেদনপত্র সিভির সাথে সংযুক্ত করুন। আপনি ছাত্র বয়সে যদি কোন সামাজিক সংগঠনের সাথে যুক্ত থাকেন বা আপনার কোন অর্জন থাকে তা হাইলাইট করুন। সবশেষে সিভির নিচে স্বাক্ষর করতে ভুলবেন না। একটি সুন্দর সাজানো সিভি নিয়োগকর্তার নিকট আপনাকে আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে। একজন সেলসম্যান যেমন দোকানে সুন্দরভাবে পণ্য সাজিয়ে ক্রেতাকে আকর্ষণ করে তেমনি একটি প্রেজেনটেবল সিভি আপনার চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেবে অনেকাংশে তাই এ ব্যাপারে একটু সতর্ক হলেই আপনি পেয়ে যাবেন কাংখিত সোনার হরিনের খোঁজ।

 

Please follow and like us:
20

Comments

comments

SHARE
Previous articleপেটের মেদ কমিয়ে ফেলুন ঘরে বসেই
Next articleকম্পিউটার ব্যবহারের সময় কি খেয়াল রাখবেন
আমি শারমিন আক্তার মুক্তা। আমি বাংলাদেশে বাস করি এবং জন্ম সূত্রে বাংলাদেশি। আমি খুব সাধারন একটা মেয়ে, ন্যায়বান, বন্ধুভাবাপন্ন, স্বাধীন মতাবলম্বী। আমি জটিলতা, অসততা, মিথ্যাবাদিতা পছন্দ করিনা। আমি সব কিছুর ভাল দিকটা চিন্তা করি। আমার দুর্বলতা হল আমি অন্য মানুষকে খুব সহজেই বিশ্বাস করি। আমার শখ বই পড়া ওগান শোনা ।