IBA তে চান্স না পেলে আপনি যে কাজ গুলো করবেন

0
9
IBA তে চান্স না পেলে আপনি যে কাজ গুলো করবেন
IBA তে চান্স না পেলে আপনি যে কাজ গুলো করবেন

IBA তে চান্স না পেলে যা করা উচিৎঃ

IBA তে পড়ার স্বপ্ন থাকে অনেকের। সেই স্বপ্নের বাস্তবায়নে আমরা কত কিছুই না করে থাকি। রাত দিন শুধু পড়াশোনা করা ছাড়া একজন মানুষ খুব সহজে কিন্তু IBA তে চান্স পেয়ে যেতে পারে না। কিন্তু মানুষ তবুও ব্যর্থ হয়। তবুই জেনে স্বান্তনা পাবেন আপনি এরকম হাজারো মানুষের চেয়ে এগিয়ে আছেন যারা ব্যার্থ হবার ভয়ে আইবিএতে পরীক্ষা দেয়ার চেষ্টাই করেনি ।

IBA তে চান্স না পেলে আপনি যে কাজ গুলো করবেন
IBA তে চান্স না পেলে আপনি যে কাজ গুলো করবেন

এখন আপনাকে ঠাণ্ডা মাথায় বসে ভাবতে হবে এবং পরবর্তী করনীয় ঠিক করতে হবে। আজকে আমি আপনাদের যারা IBA তে চান্স পান নি, তাদের জন্য কিছু টিপস নিয়ে এসেছি। এই সময়ে আপনারা কিভাবে ভালো সময় হিশেবে পাড় করতে পারেন তা নিয়েই আমার আজকের লেখা।

IBA তে যারা চান্স পেলেন না তারা যে কাজ গুলো করতে পারেন তা আমি নিম্নে একে একে লিখছি। এইসব মেনে চললে আশা করা যাচ্ছে আপনার অনেক উপকার ই হবেঃ

  •  বিশ্রাম নিনঃ

বিশ্রামের বিকল্প কিছুই নেই। একটা স্টাডি ব্রেক নিন । ফ্রেন্ডদের সাথে কিছুদিন হ্যাং-আউট করুন । নতুন ১টা ভালো গল্পের বই পড়ে শেষ করে ফেলুন । অথবা পড়াশোনার বাইরে আপনি আপনার ডিফারেন্ট হবি খুঁজে বের করুন । এতে করে আপনি কিন্তু অনেক কিছুই জেনে ফেলতে পারেন কিংবা করে ফেলতে পারেন, বই পড়লে জ্ঞান আপনার আরো বাড়বেই।

  • আপনার আগের ভুল গুলো নিয়ে এনালাইসিস করুনঃ

যেহেতু আপনি একবার প্রিপারেশন নিয়ে ফেলেছেন তাই আপনাকে নতুন করে আবার কিছু শুরু করতে হবে না ।  পরীক্ষার দিন কোথায় কোথায় সমস্যা ফেস করেছেন সেগুলো নিয়ে গভীরভাবে ভাবুন । ভুল গুলো খুজে বের করে লিখে ফেলুন নোট করে এক এক করে। দেখবেন আপনার জন্য একটা ডিসিপ্লিনড মনোভাব চলে আসবে।

  • ইংলিশ স্পোকেন চর্চা করুন এখন বেশি বেশিঃ

স্পোকেন চর্চা করার এটাই এখন আপনার মোক্ষম সময়। স্পোকেন যে কোন ভাষা শেখার প্রথম স্টেপ । স্পোকেনে ভালো হলে ইংলিশে ভালো করা এমনিতেই সহজ হয়ে যায় । এছাড়া যারা এবার ভাইভা পর্যন্ত গিয়েছিলেন তারা স্পোকেনে ফ্লুয়েন্সির গুরুত্ব হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছেন ।

  • রেসপন্সিবিলিটি নিতে শিখুনঃ

আমরা অধিকাংশরাই মা-বাবার স্পেশাল কেয়ারে বড় হই । আরো সোজা বাংলায় বললে আমরা স্পুন-ফিডে অভ্যস্ত । আইবিএ স্পুন-ফিডের জায়গা না । এখানে নিজের স্ট্রেংথ, উইকনেস নিজের বের করতে হবে । নিজের ইন্সপাইরেশন নিজেকে খুঁজে বের করতে হবে । মনে রাখবেন, কোচিং-প্রাইভেট টিউশন আপনাকে কেবল ১টা সার্টেন লেভেল পর্যন্ত হেল্প করতে পারে । বাকি রাস্তাটুকু নিজের বের করে নিতে হবে । কারো হাত ধরে আইবিএতে ঢুকে যাবেন  এই আশা ঝেরে ফেলে দেন ।

  •  প্রেসার হ্যান্ডেল করতে শিখুনঃ

আপনি এখন গ্রাজুয়েট । হাজারটা এক্সপেকটেশন থাকবে আপনার প্রতি । অনেক দিক থেকে অনেক প্রেসার আসবে । সে সবে কাবু হয়ে নিজের স্বপ্নকে বিসর্জন দিলে ১০ বছর পর আফসোস করবেন ।

  • কনফিডেন্স হারিয়ে ফেলবেন না কোন ভাবেইঃ

অনেকে এক্সামে ব্যার্থ হয়ে যে কাজটি করেন, সেটি হল জনে জনে সাজেশন চেয়ে বেড়ান । এটা আপনার প্রিপারেশনের বারোটা বাজিয়ে ছেড়ে দিবে ট্রাষ্ট মি । কারণ একেকজনের প্রস্তুতির ধরন একেক রকম ছিল । কোনটা এবং কারটা আপনি ফলো করবেন ? পুরা পাজেলড হয়ে বসে থাকবেন ।

  •  টাইম ম্যানেজমেন্টের প্রতি নজর দিনঃ

সময়মত উত্তর দিতে না পারার কারণে অনেকে পারা জিনিসও লিখে আসতে পারে না । এ ব্যাপারে আগে থেকেই কেয়ারফুল হোন । এন্ড লাস্ট বাট নট দয়া লিস্ট নিজেকে ওভার এস্টিমেট বা আণ্ডার এস্টিমেট কোনটাই করবেন না । কেউ কেউ আছেন নিজেদের ফেইলুরের জন্য পুরো দুনিয়াকে দোষারোপ করতে থাকে শুধুমাত্র নিজেকে বাদে । আবার অনেকে আছেন, একবার ফেইল করেই ভাবতে থাকেন আমাকে দিয়ে কিছুই হবে না । দুটোই খারাপ।

 

আশা করছি এই কাজ গুলো মেনে চললে আপনার নিজের জন্য অনেক ভালো হবে। আপনি নিজেকে আরো বেশি স্কিলফুল করে গড়ে তুলতে পারবেন। পরবর্তি সময়ের জন্য আপনি আবারো চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

এই লেখাটি একজনের উপকারে আসলেও আমি নিজেকে স্বার্থক বলে মনে করবো।

Please follow and like us:
20

Comments

comments