রাগ সংবরণ করুন- দেহ ও মন ভালো রাখতে হলে রাগ কে না করে দিন

0
253
রাগ-সংবরণ-করুন- দেহ-ও-মন ভালো-রাখতে-হলে-রাগ-কে-না-করে-দিন-probashijibon

রাগ সংবরণ করুনঃ

রাগ প্রতিটা মানুষের সাথে ওতোপ্রতো ভাবে জরিত একটি বিষয়। রাগ হলে আমরা কত কিছুই না করি। প্রচন্ড রাগ হলে তা অনেক সময়ই নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন। কিন্তু অনয়ন্ত্রিত রাগের ফলাফল কখনও ভালো হয়না।

রাগ-সংবরণ-করুন- দেহ-ও-মন ভালো-রাখতে-হলে-রাগ-কে-না-করে-দিন-probashijibon
রাগ-সংবরণ-করুন- দেহ-ও-মন ভালো-রাখতে-হলে-রাগ-কে-না-করে-দিন-probashijibon

রাগ মাঝে মাঝে অতি ভয়ংকর হয়ে দাঁড়ায়।আসলে বলা অনেক সহজ যে রাগ করা ভাল না, রাগ থেকে দূরে থাকতে কিন্তু সত্যি সত্যি রাগ ঠেকানো অনেক কঠিন কাজ। আমার নিজেরও খুব মাথা গরম তাই অনেকেরই উপদেশ শুনতে হয়, তখনও আবার রাগ লাগে। তাও চেষ্টা করি একটু নিয়ন্ত্রণে রাখতে। বলতে গেলে রাগ হল ৩ রকম-

১। যথার্থ রাগঃ

যখন আসলেই কেউ এমন কোন অন্যায় বা অনুচিত কথা বলে/ কাজ করে যা থেকে রাগ আসা স্বাভাবিক। এক্ষেত্রে আমি মনে করি রাগ পুষে না রেখে প্রকাশ করা উচিত, তাতে সেই ব্যক্তি হয়ত ভবিষ্যতে একই কাজ করা থেকে বিরত থাকবে। তবে রাগ ঝাড়তে যেয়ে নিজে অন্যায় কিছু করতে যাবেন না। আর যদি সে জেনে শুনে একই কাজ করে, তাহলে তাকে এড়িয়ে চলুন বা সম্পর্ক মিটিয়ে ফেলুন।

২। অন্যায় রাগঃ

হতে পারে আসলে আপনি নিজে কাউকে পছন্দ করেন না, তাই তার সবকিছুতেই রাগ লাগে। আমার এক কলিগকে অনেক বিরক্ত লাগত তাই তার দুষ্টামিতেও হঠাৎ ক্ষেপে উঠতাম। কিন্তু পরে বুঝি ভুলটা মারই। এমন ক্ষেত্রে নিজেকে বুঝান যে সবাই আপনার মত না, একেক মানুষের আচরণ একে রকম। আপনি তাকে তার মত করে মেনে নিলে সেও আপনাকে আপনার মত মেনে নিবে। এতে দেখবেন পরে তার উপর রাগ আর আসবে না।

৩। অযথা রাগঃ

আমার হাত থেকে কিছু পড়ে গেলে, দেয়ালের সাথে ধাক্কা লাগলে, গায়ে মাটির ছোঁয়া লাগলে খুবই বিরক্ত লাগে, প্রায়ই গালি দিয়ে চেঁচিয়ে উঠি। এটা খুবই খারাপ অভ্যাস। এরকম ব্যাপার দৈনন্দিন জীবনে অহরহ ঘটবেই, তাই এসবকে পাত্তা না দিতে শেখা দরকার। আস্তে আস্তে নিজেকে বুঝান যে এসবের উপর আপনার কোন কর্তৃত্ব নেই তাই রাগ করেই লাভ নেই।

রাগ-সংবরণ-করুন- দেহ-ও-মন ভালো-রাখতে-হলে-রাগ-কে-না-করে-দিন-probashijibon
রাগ-সংবরণ-করুন- দেহ-ও-মন ভালো-রাখতে-হলে-রাগ-কে-না-করে-দিন-probashijibon

সুতরাং সবক্ষেত্রেই নিজের অবস্থান ও কর্তৃত্ব বুঝে রাগ করতে হবে। যে বা যা থেকে আপনার খুব বেশি রাগ আসে সেটা যথা সম্ভব এড়িয়ে চলুন। কারও সাথে ঝামেলা থাকলে সরাসরি কথা বলে সমাধান করুন বা গুডবাই বলে দিন। রাগের মাথায় এমন কিছু করবেন না যাতে উল্টা আপনাকে লোকে খারাপ বলে। কিছু পছন্দের গান থাকতে পারে যা শুনলে আপনার শান্তি লাগে, সেগুলো সাথে রাখুন (সেলফোন, আইপড)। খুব বিস্বস্ত কারও কাছে মনের কথা বললেও রাগ অনেক ঠান্ডা হয়। নিজেকে বুঝান যে রাগ করে অন্যের চেয়ে নিজের ক্ষতিই বেশি হয়। একদমই না পারলে মেডিটেশন বা ডাক্তারের সাহায্য নিন। তবে যেদিন মাথা ঠান্ডা রেখে রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন সেদিন থেকে আপনার দৃষ্টিভঙ্গীও বদলে যাবে। জীবনের অনেক সিদ্ধান্ত ও সম্পর্ক সঠিক পথে নিতে পারবেন। তাই নিজের স্বার্থেই রাগ ভুলে যান।

Please follow and like us:
20

Comments

comments