কম্পিউটার গেমে আসক্তি

0
411
কম্পিউটার গেমে আসক্তি

কম্পিউটার গেমে আসক্তি

কম্পিউটার গেমে আসক্তিটা প্রায় সময়েই শুরু হয় শৈশব থেকে এবং বেশির ভাগ সময় সেটা ঘটে অভিভাবকদের অজ্ঞতার কারণে। কম্পিউটার একটা Tool এবং এটা দিয়ে নানা ধরনের কাজ করা যেতে পারে। এই প্রযুক্তি সম্পর্কে এতো সুন্দর সুন্দর কথা বলা হয়েছে যে অনেক সময়ই অভিভাবকরা ধরে নেন এটা দিয়ে যা কিছু করা হয় সব ভালো। তাই যখন তারা দেখেন তাদের সন্তানেরা দীর্ঘ সময় কম্পিউটারের সামনে বসে আছে তারা বুজতে পারেনা এর মাঝে সতর্ক হওয়া জরুরী। কম্পিউটার গেম এক ধরনের বিনোদন এবং এই বিনোদনের নানা রকম মাত্রা রয়েছে । যারা সেটি খেলছে তারা সেটাকে নিছক বিনোদন হিসেবে নিয়ে মাত্রার ভেতরে ব্যাবহার করলে সেটি অবশ্যই একটি সুস্থ বিনোদন। কিন্তু প্রায় সময় এটা ঘটেনা।দেখা গেছে একটি অবুজ শিশু থেকে পূর্ণ বয়স্ক মানুষ পর্যন্ত কম্পিউটার গেমে আসক্তি হয়ে যেতে পারে। কোরিয়ায় একজন টানা পঞ্চাশ ঘণ্টা কম্পিউটার গেম খেলে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েছিল, চীনের এক দম্পতি কম্পিউটার গেম খেলার অর্থ জোগাড় করতে নিজেদের শিশু সন্তানকে বিক্রি করে দিয়েছিলো। গবেষণায় দেখা গেছে কোন একটা কম্পিউটার গেমে তিব্রভাবে আসক্ত একজন মানুষের মস্তিষ্কে বিশেষ উত্তেজক রাসায়নিক পদার্থের আবির্ভাব হয়। শুধু তাই নয় যারা সপ্তাহে ছয়দিন টানা দশ ঘণ্টা কম্পিউটার ব্যাবহার করে তাদের মস্তিষ্কের গঠনেও এক ধরনের পরিবর্তন হায়ে যায়। এই উদাহরণগুলো আমাদের মনে করিয়ে দেয় কম্পিউটার গেমে আসক্ত হয়ে যাওয়া মোটেও বিচিত্র কিছু নয় এবং একটু সতর্ক না থাকলে খুব সহজেই আসক্ত হয়ে যেতে পারে আমদেরি প্রিয় মানুষগুলো।

আসক্তি মানেই হচ্ছে এক প্রকার নেশা আর নেশা সব কিছুর জন্যই খারাপ একটা সুন্দর জীবন ধ্বংস করার জন্য যে কোন নেশাই যথেষ্ট। কাজেই কম্পিউটার গেম চমৎকার একটা বিনোদন হতে পারে কিন্তু এতে আসক্ত হওয়া খুব সহজ এবং তার পরিনতি মোটেও ভালো নয় , সেটা সবাইকে মনে রাখতে হবে।

 

Please follow and like us:
20

Comments

comments

SHARE
Previous articleমানসিক খুনি
Next articleকথার মূল্য অনেক বুঝতে হবে
আমি শারমিন আক্তার মুক্তা। আমি বাংলাদেশে বাস করি এবং জন্ম সূত্রে বাংলাদেশি। আমি খুব সাধারন একটা মেয়ে, ন্যায়বান, বন্ধুভাবাপন্ন, স্বাধীন মতাবলম্বী। আমি জটিলতা, অসততা, মিথ্যাবাদিতা পছন্দ করিনা। আমি সব কিছুর ভাল দিকটা চিন্তা করি। আমার দুর্বলতা হল আমি অন্য মানুষকে খুব সহজেই বিশ্বাস করি। আমার শখ বই পড়া ওগান শোনা ।